৪দিন আটকে রেখে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ ও ভিডিও ধারন

স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ

৪ দিন আটকে রেখে এক স্কুলছাত্রীকে পালাক্রমে গণধর্ষণের ঘটনায় ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের একটি বিশেষ অভিযানিক দল।

রোববার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে র‌্যাব জানায়, গত ২৬শে মার্চ রাতে গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়ার পীরেরবাড়ি মন্দির থেকে গান শুনে মামা বাড়ি যাওয়ার পথে এক স্কুলছাত্রীকে জোরপূর্বক অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে নগ্ন করে ভিডিও ধারণ করে কতিপয় দুর্বৃত্তরা।

পরে ওই স্কুলছাত্রীকে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে সারারাত পালাক্রমে ধর্ষণ করে। পরের দিন অন্যত্র নিয়ে লাউড স্পিকার বাড়িয়ে তিনদিন ধরে পালাক্রমে আবারো গণধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে নির্যাতিতা জানালা ভেঙে পালিয়ে পাশের একটি বাড়িতে আশ্রয় নেয়।

পড়ুনঃ-  আবার প্রকাশ্যে এলেন ডা. মুরাদ

চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে ঢাকা, গোপালগঞ্জ ও মাদারীপুরের শিবচর থেকে আটক করা হয়। এরা হলো- গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়া উপজেলার পলটানা গ্রামের কালু বাড়ৈর ছেলে গোপাল বাড়ৈ (৩০), খোকন বাড়ৈর ছেলে অটল বাড়ৈ (২২), প্রতাপ চন্দ্র বাড়ৈর ছেলে প্লাবন বাড়ৈ (২৫) এবং মশুরিয়া গ্রামের নারায়ণ বালার ছেলে বরুন বালা (২৩)।

পড়ুনঃ-  দরিদ্রদের ওপর কর চাপানোর সংস্কৃতি বন্ধ করুন: অর্থনীতি সমিতি

র‌্যাব আরও জানায়, আসামিরা মাদকসেবনকারী ও মাদক ব্যবসায়ী। এদের নামে কোটালীপাড়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হয়েছে।’

সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এসব তথ্য জানান ‘র‌্যাব-৮ মাদারীপুর ক্যাম্পের দায়িত্বে থাকা কোম্পানী অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লিডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন সহকারী পরিচালক মোঃ রবিউল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।