রাজশাহীতে চার দফা দাবীতে ডিপ্লোমা সার্ভে প্রকৌশলীদের মতবিনময় সভা

রাজশাহীতে চার দফা দাবীতে ডিপ্লোমা সার্ভে প্রকৌশলীদের মতবিনময় সভা

সংশ্লিষ্ট সকল সরকারি দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরে সার্ভেয়ার ও সমমানের শূন্য পদে দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগসহ চার দফা দাবি দ্রুত বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছে সার্ভে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারদের অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড সার্ভে ইন্সটিটিউট, রাজশাহী’ এর বর্তমান ও প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীরা।

আজ শনিবার নগরীর রাশ কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় এই আহ্বান জানানো হয়।

প্রতিষ্ঠানটির প্রাক্তন প্রিন্সিপাল মাহমুদ হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন অধ্যক্ষ মাহমুদ হাসান, প্রাক্তন ছাত্র মজিবুল হক, আফান উল্লাহ, রুহুল আমীন ইকবাল, রফিকুল ইসলাম চুন্নু, নঈমুল ইসলাম, মিরাজ হোসেন, ইসমাইল হোসেন প্রমূখ।

-জীবন আর্ট এন্ড ডিজিটাল সাইন

সভায় সংশ্লিষ্ট সকল সরকারি দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরে সার্ভেয়ার ও সমমানের শূন্য পদে দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিয়োগ ছাড়াও ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং (সার্ভেয়িং) ডিগ্রীধারী সকল ডিপ্লোমা প্রকৌশলীগণের নিয়োগের সকল ক্ষেত্রে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিশ্রুত দশম গ্রেডের বেতন স্কেল বাস্তবায়ন, সংশ্লিষ্ট সকল সরকারি দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তরে নিয়োগপ্রাপ্ত ডিপ্লোমা সার্ভে ইঞ্জিনিয়ারদের পদবী যেখানে সার্ভেয়ার, সাব-সার্ভেয়ার, কম্পিউটর, বাউন্ডারী আমিন ইত্যাদি পরিবর্তন করে “উপ-সহকারী প্রকৌশলী (সার্ভে)” করণ ও ভূমি মন্ত্রণালয়ের বর্তমান নিয়োগবিধি সংশোধন করে ডিপ্লোমা সার্ভে প্রকৌশলীদের সার্ভেয়ার, সাব-সার্ভেয়ার, কম্পিউটর, বাউন্ডারী আমিন ইত্যাদি পদধারী (প্রস্তাবিত পদ: উপ-সহকারী প্রকৌশলী (সার্ভে)দের কানুনগো ও উপসহকারী সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে উক্ত পদে চাকরির মেয়াদ ১০ বছরের স্থলে ৫ বছর করার দাবি জানানো হয়।

পড়ুনঃ-  নির্মাণকালেই ভেঙে পড়ল মডেল মসজিদের বিম

সভায় বক্তারা বলেন, একাধিক বার এই ৪দফা দাবি পূরণের কথা বলা হলেও কোন দফাই আজ পর্যন্ত পুরন হয়নি বলে ভূমি মন্ত্রণালয়ে কর্মরত সার্ভেয়ারগন হতাশায় দিন যাপন করছে

উল্লেখ্য যে, ভূমি মন্ত্রণালয়ে কর্মরত সার্ভেয়ারগণ ১৪ তম গ্রেডে বেতন প্রাপ্ত হন। একই সময়ে উক্ত ১৪ তম গ্রেডের সার্ভেয়ার ও ভূমি ব্যবস্থাপনায় কর্মরত অন্যান্য কর্মচারীদের বেতনস্কেল উন্নীত করণ ব্যাতিরেকে কেবলমাত্র ১৬ ও ১৭ তম গ্রেডে ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা ও ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা যথাক্রমে ১১ ও ১২ গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। ফলে সার্ভেয়ারগনের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। ফলে তারা কর্মবিরতি দেয়ার কথা ভাবছে। সার্ভেয়ারগণ কর্মবিরতি দিলে মুজিব শতবর্ষে ভূমিহীন পুনর্বাসন, ভূমি ব্যবস্থাপনা ডিজিটাইজেশন প্রকল্পসহ সার্বিক ভুমি সেবা ব্যবস্থাপনা মুখ থুবড়ে পড়বে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করেন।

দৈনিক চারঘাট ইউটিউব চ্যানেলে SUBSCRIBE করুন।

পড়ুনঃ-  পুনাকের অর্থায়নে চারঘাটে নির্মিত হলো গৃহহীন ভানু বিবির স্বপ্ননীড়