বিএনপির আন্দোলনের প্রস্তুতি শেষপ্রান্তে, জানালেন গয়েশ্বর

গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের রূপরেখা খুব শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। আজ শুক্রবার (১৩ মে) সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) আয়োজিত এক আলোচনাসভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘বৃহত্তম জোটের শীর্ষ দল বিএনপি এই ভাবনাকে (জাতীয় ঐক্য) কেন্দ্র করে একটা বক্তব্য বা বিবৃতি দেবে, যার মধ্য দিয়ে সবাই একত্রিত হবে এবং আগামী দিন পথে চলবে। আমার মনে হয় সেই প্রচেষ্টা ও ভাবনা আমাদের মধ্যে চলমান। যেকোনো মুহূর্তে আমরা জাতির সামনে সেটা উপস্থাপন করব। ’

উপস্থাপক সম্পর্কে বিএনপির এ শীর্ষ নেতা বলেন, ‘সংগত কারণেই উপস্থাপকের প্রশ্ন আসতে পারে যে আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়া বন্দি- এ ব্যাপারে কারো কোনো দ্বিমত নাই। তার অবর্তমানে আমাদের দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান খুব তাড়াতাড়ি আপনাদের সামনে সেই আহ্বান দেবেন এবং আগামী দিনে আন্দোলনের রূপরেখা উপস্থাপন করবেন। এ ব্যাপারে (আন্দোলনের রূপরেখা) আমাদের প্রস্তুতি শেষপ্রান্তে। ’

পড়ুনঃ-  ‘ছায়ার মতো থাকব’ আইভীর মাথায় হাত রেখে তৈমূর

গয়েশ্বর বলেন, ‘আমাদের পথ চলার ক্ষেত্রে সবাইকে একসঙ্গে চলতে হবে। যে বিষয়ে গত কাউন্সিলে খালেদা জিয়ার উক্তি ছিল যে- নানা মানুষ নানা মত, দেশ বাঁচাতে ঐক্যমত। আমার মনে হয় যে, আমাদের নানান ভাবনা থেকে একটাই ভাবনা হচ্ছে, আমরা মাথা উঁচু করে এক পথেই চলব, আমরা এ কথায় একভাবে চলব। ’

পড়ুনঃ-  বৃহত্তর জোট করে আন্দোলনে যেতে চায় বিএনপি

বিরোধী রাজনৈতিক দলের শরিকদের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘অনেক দলের চলমান সংকট উত্তরণের পথে নানামুখী ভাবনা বা নানামুখী দিকনির্দেশনা থাকতে পারে। কিন্তু সরকারের যে ফ্যাসিবাদী চরিত্র, তাদের কর্মকাণ্ড খুব দ্রুত তাদেরকে একত্রিত করেছে সবাই সবার ভাবনা ত্যাগ করে একভাবে একপথে চলতে চায়। আমি গত এক মাসের অনুষ্ঠানে বিভিন্ন বক্তার বক্তব্য থেকে অনুমান করছি, বিরোধী দলের নেতারা গত এক মাসে যেসব বক্তব্য দিয়েছেন এখন তা না দিয়ে একটা জাতীয় ঐক্যকে নিশ্চিত করার মাধ্যমে অনেকেই তাতে একমতের কাছাকাছি এবং একসঙ্গে হাঁটাচলা করছেন। ”

পড়ুনঃ-  রিমোট কন্ট্রোলে হুমকি দিচ্ছে বিএনপি: কৃষিমন্ত্রী

জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম মিলনায়তনে ‘গ্রহণযোগ্য নির্বাচন সংকটের একমাত্র সমাধান’ শীর্ষক এই আলোচনাসভা হয়। এই অনুষ্ঠানে এলডিপি (অলি আহমদ) অংশের সহসভাপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, উপদেষ্টা ফরিদ আমিন, যুগ্ম মহাসচিব তমিজ উদ্দিন টিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মো. ইব্রাহিম রওনক, গণতান্ত্রিক যুবদলের সাইফুল ইসলাম বাবু, মোহাম্মদ ফয়সাল, গণতান্ত্রিক ওলামাদলের মাওলানা বদরুদ্দোজা, মাওলানা আবদুল হাই নোমান, মহানগর দক্ষিণের এ এস এম মহিউদ্দিনের নেতৃত্বে ২১৫ জন নেতাকর্মী এলডিপিতে (আবদুল করীম আব্বাসী) যোগ দেন।