বাঘায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০

বাঘায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০

রাজশাহীবাঘায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলাকালে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সোমবার (২১ মার্চ) দুপুরে উপজেলার শাহদৌলা সরকারি কলেজ মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

বাঘায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ২০
বাঘায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

ওই সময় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, সদস্য বেগম আখতার জাহান, রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অনিল কুমার সরকার, সাধারণ সম্পাদক আবদুল ওয়াদুদ দারা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লায়েব উদ্দীন লাভলু সহ শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বাঘায় আ.লীগের সম্মেলনে দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বেলা ১১টার দিকে বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শুরু হয়। মঞ্চে অতিথিরা আসন গ্রহণের পরপরই সংঘর্ষ হয়। জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আক্কাছ আলীর সমর্থকরা মঞ্চের সামনে স্লোগান দিলে তাদের ঠেকানোর চেষ্টা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সমর্থকরা।

পড়ুনঃ-  যে আদালতে রায় নেই জেনেও মামলা লড়ছেন আইনজীবীরা

এ নিয়ে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়ায়। শুরু হয় চেয়ার ছোড়াছুড়ি ও ভাঙচুর। বাঁশের লাঠি হাতে সংঘর্ষে জড়ায় দুই পক্ষ। প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে চলা এই সংঘর্ষে আতঙ্কিত হয়ে লোকজন সম্মেলন স্থল ত্যাগ করেন।

নেতাদের সামনেই সংঘর্ষে জড়ালেন আ.লীগের দুই গ্রুপ

দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে শাহরিয়ার আলমের কর্মী সাইফুল ইসলাম ও সিরাজুল ইসলামকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। অন্যদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। পরে পুলিশি তৎপরতায় দুই পক্ষ ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। পরিস্থিতি শান্ত হলে শুরু হয় সম্মেলন।

পড়ুনঃ-  বাঘায় সাংবাদিককে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আবারও আলোচনায় আ'লীগ সভাপতি কুদ্দুস !

এ ঘটনায় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এবং আওয়ামী লীগ নেতা আক্কাছ আলীর বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। বাঘা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজ্জাদ হোসেন জানান, দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়ালে পুলিশ ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।

এদিকে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীনতম দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ কখনো চোরাপথ বা অন্ধকার পথ দিয়ে ক্ষমতায় আসেনি। আওয়ামী লীগ জনগণের দল, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাজনীতি করে যাচ্ছে। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বঙ্গবন্ধুকন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে তৃণমূলে আওয়ামী লীগকে আরও শক্তিশালী করতে জেলা-উপজেলায় সম্মেলন করা হচ্ছে। সম্মেলনের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচিত করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগে বিশৃঙ্খলাকারীদের কোনো জায়গা নেই।

পড়ুনঃ-  পি কে হালদারকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হবে: ইডি

সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে বাঘা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম ও সাধারণ সম্পাদক পদে আশরাফুল ইসলাম বাবুলের নাম ঘোষণা করা হয়।