পরীমণির বিরুদ্ধে মিডিয়া ট্রায়াল করা হয়েছে: হাইকোর্ট

পরীমণির বিরুদ্ধে মিডিয়া ট্রায়াল করা হয়েছে: হাইকোর্ট

মাদকসহ আটক করে পরীমণির মিডিয়া ট্রায়াল করা হয়েছিলো বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। একজন নারীকে পেয়ে ভিক্টিম বানিয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ মামলা বাতিলের শুনানিতে এমন মন্তব্য করেন। পরে আদালত মাদক মামলা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে পরীমণির আবেদনের ওপর কাল আদেশের দিন ধার্য করেন।

গত ৩০ জানুয়ারি মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় অভিযোগ গঠনের আদেশ ও মামলা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। ফৌজদারি কার্যবিধির ৫৬১ক ধারা অনুযায়ী আবেদনটি করা হয়।

পড়ুনঃ-  নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছেন জায়েদ খান, ঘোষণা দেবেন আলমগীর

গত বছরের ১৫ নভেম্বর মাদক আইনে করা মামলায় চিত্রনায়িকা পরীমণিসহ তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র আমলে নেন ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালত। সেই সঙ্গে চার্জ গঠনের জন্য দিন ধার্য করে মামলাটি বিশেষ জজ আদালতে স্থানান্তর করা হয়।

গত ৫ জানুয়ারি চিত্রনায়িকা পরীমণিসহ তিন জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১০-এর বিচারক মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম অভিযোগ গঠন করেন। একই সঙ্গে আদালত পরীমণিসহ তিন জনকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়ার আবেদন নামঞ্জুর করেন। অপর দুই আসামি হলেন- আশরাফুল ইসলাম দীপু ও কবির হোসেন।