কুমিল্লায় ঘুষ ছাড়াই পুলিশে চাকরি পেল ১৫০ জন

কুমিল্লায় ঘুষ ছাড়াই পুলিশে চাকরি পেল ১৫০ জন

কুমিল্লায় কোনো প্রকার লবিং-তদবির কিংবা ঘুষ ছাড়াই মেধা ও যোগ্যতায় পুলিশ কনস্টেবল পদে চাকরি পেয়েছেন ১৫০ জন। রবিবার কুমিল্লা জেলা পুলিশের আয়োজনে পুলিশ লাইনস শহীদ আর আই এ বি এম আব্দুল হালিম মিলনায়তনে নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত ১৫০ জন নারী ও পুরুষ কনস্টেবলকে ফুলেল শুভেচ্ছা ও সংবর্ধনা দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা জেলা পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ সুপার (অর্থ ও প্রশাসন) কাজী আব্দুর রহিম, সহকারী পুলিশ সুপার (অপরাধ) এম তানভীর আহমেদ ও সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সোহান সরকার

নতুন নিয়োগ প্রাপ্ত পুলিশ কনস্টেবলদের উদ্দেশ্য করে পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ বলেন, ঘোষ ছাড়া চাকরি পেয়েছো এই বিষয়টি মাথায় রেখেই আগামীর পথচলা অনেক মসৃণভাবে চলতে হবে। চাকরি নয় সেবা, স্বপ্ন হলো সত্যি এই স্লোগানকে বুকে ধারণ করে সামনে এগিয়ে যেতে হবে। সততা, নিষ্ঠা ও আস্থা অর্জনের মাধ্যমে দেশের সেবায় সর্বদা নিজেকে নিয়োজিত রাখতে হবে।

পড়ুনঃ-  র‍্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

নারীদের মধ্যে ১ম স্থান অধিকারী নাঙ্গলকোট উপজেলার মোঃ সাজ্জাদ হোসেন মেয়ে সানজিদা অনুভূতি শেয়ার করে বলেন, কোন অর্থ ছাড়াই চাকরি পেয়ে আমি খুশিতে আত্মাহারা। আমি হতদরিদ্র পরিবারের একটি মেয়ে। আমি ও আমার পরিবার কুমিল্লা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট চির কৃতজ্ঞ থাকবো। অন্যদিকে পুরুষের মধ্য থেকে ১ম স্থান অধিকারী কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার আবুল কাশেমের ছেলে সাইদুল ইসলাম অনুভূতি শেয়ারকালে বলেন কখনো ভাবতে পারিনি গরিব ঘরের ছেলে হয়ে ঘোষ ছাড়াই চাকরি মিলবে।

পড়ুনঃ-  বাড়ানো হয়েছে বইমেলার সময়সীমা

বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি স্যার ও কুমিল্লা পুলিশ সুপার মহোদয়ের কাছে চির ঋণী থাকবো আমি ও আমার পরিবার। উল্লেখ্য, গত ২৯ মার্চ পুলিশ কনস্টেবল পদের লিখিত পরীক্ষা; পরে ৯ এপ্রিল মনস্তাত্ত্বিক ও মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

১২ শ’ ছয়ত্রিশ জন পরিক্ষার্থীর মধ্যে সাধারণ কোটায় (নারী) ১২ জন, মুক্তিযোদ্ধা কোটায় ১১ জন ও সাধারণ কোটায় (পুরুষ) ১২৭ জনসহ মোট ১৫০ জন নিয়োগ পেয়েছেন কুমিল্লা জেলায়।