এবার ডাক্তারের ছুরি-কাঁচির নিচে যাচ্ছেন হ্যাজার্ড

এবার ডাক্তারের ছুরি-কাঁচির নিচে যাচ্ছেন হ্যাজার্ড

২০১৯ সালে অনেক আশা নিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ দলে ভেড়ায় বেলজিয়ামের উইংগার এডেন হ্যাজার্ডকে। হ্যাজার্ডও চেলসি ছেড়ে নিজের ড্রিম ক্লাবে আসতে পেরে খুশিই ছিলেন। রোনালদোর অভাব মেটাবেন এমন আশা নিয়ে দলে ভেড়ানো হলেও মাদ্রিদে এসে নিজেকে হারিয়ে ফেলেন রাশিয়া বিশ্বকাপে দারুণ খেলা উইংগার। মূলত ইনজুরি তাকে দলে অনিয়মিত করে দেয়। শেষ খবর হলো আবার ইনজুরিতে পড়েছেন হ্যাজার্ড। এবার তাকে যেতে হচ্ছে অস্ত্রোপচারের ছুরি-কাঁচির নিচে।

পড়ুনঃ-  বর্ষসেরা একাদশে মুস্তাফিজ

রিয়াল মাদ্রিদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে শুক্রবার (২৫ মার্চ) এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, হ্যাজার্ডের ডান পায়ের ফিবুলার প্লেট অপসারণের জন্য তাকে খুব দ্রুত অস্ত্রোপচার করানো হবে। এই অস্ত্রোপচার শেষে ঠিক কতদিন লাগবে তার মাঠে ফিরতে তা অবশ্য জানায়নি মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ।

মাদ্রিদের হয়ে হ্যাজার্ড এই মৌসুমে খুব একটা মাঠে নামেননি। বেনজেমা-ভিনিসিয়াসে আস্থা রাখা কোচ আঞ্চেলত্তির দলে প্রয়োজনীয়তা হারিয়ে ফেলা এই ৩১ বছর বয়সী সর্বশেষ মাঠে নামেন ১৯ ফেব্রুয়ারি লা লিগায় আলাভেসের বিপক্ষে ৩-০ গোলে জয় পাওয়া ম্যাচে। সেদিন শেষ পাঁচ মিনিট মাঠে ছিলেন এই উইংগার। এমনকি এল ক্লাসিকোতে ৪-০ গোলে হারা ম্যাচেও বেঞ্চে থাকা স্বত্বেও তাকে মাঠে নামাননি রিয়াল মাদ্রিদ বস।

পড়ুনঃ-  একজনকে বেছে নিতে বললে শরীফুলকে নেব

২০১৯ সালের জুলাইয়ে রিয়াল মাদ্রিদে আসার পর এ পর্যন্ত মোটে ৬৫ ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন হ্যাজার্ড। মাঠের চেয়ে হাসপাতাল আর হুইলচেয়ারের সঙ্গেই বেশি সখ্যতা তৈরি করা বেলজিয়াম তারকাকে রিয়াল হয়তো এই মৌসুম শেষেই বিক্রি করে দেওয়ার চেষ্টা করবে। একের পর এক চোটে অসময়ে ক্যারিয়ার শেষের আতঙ্কে থাকা হ্যাজার্ড এই মৌসুমে ক্লাবের হয়ে খেলতে পেরেছেন মোটে ২১টি ম্যাচ। যার মাত্র ৮টিতে তিনি মূল একাদশে থেকে শুরু করেছিলেন।